এই পাতাটি প্রিন্ট করুন এই পাতাটি প্রিন্ট করুন

১৬ কোটি মানুষের খাদ্যের চাহিদা মেটাতে কৃষি গ্রাজুয়েটদের কাজ করত হবে

orient16 300x231 ১৬ কোটি মানুষের খাদ্যের চাহিদা মেটাতে কৃষি গ্রাজুয়েটদের কাজ করত হবেকৃষিবিদ দীন মোহাম্মদ দীনু

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (ময়মনসিংহ) জানুয়ারি ১০: বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয মঞ্জুরি কমিশনের(ইউজিসি) চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান বলেছেন, শিক্ষার গুণগত মানোন্নয়নের পাশাপাশি দেশের ১৬ কোটি মানুষের খাদ্যের চাহিদা মেটাতে বাকৃবির গ্রাজুয়েটদের প্রতি দেশবাসীর প্রত্যাশা অপরিসীম। ইউজিসি চেয়ারম্যান গত রবিবার (১০ জানুয়ারি ২০১৬) বিশ্ববিদ্যালয়ের শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন মিলনায়তনে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বাকৃবি) ৬ টি অনুষদের স্নাতক (লেভেল-১, সিমেস্টার-১) শ্রেণীতে ভর্তিকৃত নবাগত ছাত্র-ছাত্রীদের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক-কর্মকর্তা, কর্মচারি ও অভিভাবকদের উদ্দ্যেশ্যে এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পদচারনায় মুখরিত হয়ে ছিল। তাই ইতিহাস ঐতিহ্যে এ বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে অনন্য। তিনি আরও বলেন বাংলাদেশের নায়ক হচ্ছে ‘কৃষক’ আর এই নায়ক বানানোর কারিগর হচ্ছে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়।কৃষিকে মানব সভ্যতার অন্যতম পেশা উল্লেখ করে ইউজিসি চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান বলেন সময়টা অনেক বদলে গেছে, আর এ বদলে যাওয়া সময়ে আমরা আজ চাল রপ্তানী করছি, মাছ উৎপাদনে বিশ্বে ৫ম স্থান দখল করেছি। যার ফলশ্রুতিতে দেশ আজ খাদ্যে সয়ংসম্পূর্ণ। এ দেশের নারীরা পাহাড়ের চূঁড়ায় উঠে বিশ্ব জয় করেছে। তিনি আরও বলেন একটি বিশ্ববিদ্যালয়কে জ্ঞাণ সৃষ্টি করতে হয়, জ্ঞাণ ধারণের ও জ্ঞাণ বিতরণেরও ব্যবস্থা থাকতে হয় যার সবকটা গুণ বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের রয়েছে।
অনুষ্ঠানে প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ আলী আকবর।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভাইস-চ্যান্সেলর বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশের সামনে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ সবার জন্য খাদ্য ও পুষ্টি নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। কৃষকের চাহিদাভিত্তিক কৃষি প্রযুক্তি উদ্ভাবন ও সম্প্রসারণের মাধ্যমে খাদ্য তথা কৃষি পণ্যের উৎপাদন বৃদ্ধি করে পর্যাপ্ত সুষম খাদ্যের ব্যবস্থা করার যে প্রয়াস চলছে তাকে উন্নত কৃষি জ্ঞান ও গবেষণা দিয়ে আরও বেগবান করার দায়িত্বও বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের।
ভাইস-চ্যান্সেলর আরো বলেন, ছাত্র-ছাত্রীদের প্রধান এবং প্রথম কর্তব্য হলো পড়াশুনা করা। পড়াশুনার পাশাপাশি নিজেকে একজন দক্ষ ও যোগ্য কৃষিবিদ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। তিনি বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কর্তৃক কৃষিবিদদের প্রথম শ্রেণীর মর্যাদা দানকে ছাত্র-ছাত্রীদের স্মরণ রাখার আহবান জানান।
ছাত্র বিষয়ক উপদেষ্টা প্রফেসর ড. মোঃ জসিমউদ্দিন খানের সভাপতিত্বে ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন ডীন কাউন্সিলের কনভেনর প্রফেসর ড. সচ্চিদানন্দ দাস চৌধুরী, শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. খন্দকার শরীফুল ইসলাম, প্রভোষ্ট কাউন্সিলের কনভেনর প্রফেসর ড. সুকুমার সাহা, প্রোক্টর প্রফেসর ড. এ কে এম জাকির হোসেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার কৃষিবিদ মোঃ ছাইফুল ইসলাম, ওরিয়েন্টেশন বাস্তবায়ন কমিটির সদস্য-সচিব প্রফেসর ড. মোঃ আলমগীর হোসেন, ছাত্রলীগ নেতা মোঃ রুবেল মিয়া, এস এম রায়হান,সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট, ছাত্র ইউনিনের নেতৃবৃন্দ প্রমুখ।।


আরও পড়ুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৬-২০১৭. কৃষিসংবাদ.কম
(গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য অধিদপ্তরে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত)