যাদুভোগ আমের যাদুতে লাখপতি ভোলাহাটের আমচাষী আব্দুস সালাম

  মো. মোশারফ হোসেন, বিশেষ প্রতিনিধি: যাদুভোগ আমের যাদুতে লাখপতি চাপাইনবাবগঞ্জ জেলার ভোলাহাট উপজেলার সন্দ্রাবাড়ি গ্রামের আমচাষী আব্দুস সালাম নাবী জাতের যাদুভোগ আমের যাদুতে লাখপতি হয়েছেন। তার সংসারে সুদিন ফিরে এসেছে। তার দেখাদেখি এলাকার অনেকেই এই নাবী জাতের আম বাগানে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন। ১৪ কি ১৫ বছর আগে প্রথমে সালাম একটি যাদুভোগ আমের চারা রোপন ..বিস্তারিত

সেলসম্যানের চাকরী ছেড়ে এখন নিজেই ব্যবসা করছে ১৫ বছরের শামীম

শাহ এমরান শাহ সেলসম্যানের চাকরী ছেড়ে এখন নিজেই ব্যবসা করছে কিছু দিনপর পরই ফোন আসে মাঝে মাঝে রিসিভ করি, মাঝে মাঝে করিনা। একদিন ফোন ধরে বললাম তুই কি আমাকে ওই ৫০০/- টাকার জন্য এখনও ফোন দিস। ছেলেটা বলল, না স্যার। আপনেরা কেমন আছেন তা জানার জন্য ফোন দেই। উত্তরে বললাম, চাকরী করবি? আমার এক বন্ধুর ..বিস্তারিত

বেশি লাভের কারনে বিনা চীনাবাদাম-৪ চাষে কৃষকদের আগ্রহ বাড়ছে

মোঃ মোশারফ হোসেন (শেরপুর): বিনা চীনাবাদাম-৪ চাষে কৃষকদের আগ্রহ বাড়ছে। চাষের অনুকূল অবস্থা থাকা স্বত্ত্বেও বাংলাদেশে খুব অল্প পরিমাণ জমিতেই চীনাবাদাম চাষ করা হয়। যদিও খাদ্য-পুষ্টি, তেল, পশুখাদ্য, খইল, সার, শিল্পের কাঁচামাল প্রভৃতি বিবিধ উদ্দেশ্যে চীনাবাদাম ব্যবহৃত হয়। নদীর তীরবর্তী অনুর্বর পতিত জমিতে অন্যকোন ফসল ভালো না হলেও, বাদামের ফলন ও লাভ বেশি হওয়ায় এ ..বিস্তারিত

নিরাপদ সবজি-ফল চাষে বেকারত্ব জয় করলেন শিক্ষিত যুবক শেখ ফরিদ

মো. মোশারফ হোসেন (শেরপুর) : নিরাপদ সবজি-ফল চাষে বেকারত্ব জয় শেরপুরের নকলায় শিক্ষিত বেকার যুবকরা সোনার হরিন নামক সরকারি চাকরির আশা ছেড়ে দিয়ে নিরাপদ শাক-সবজি ও ফলের বাগান করে বেকারত্বকে জয় করার স্বপ্ন দেখছেন। উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নেই এমন উদ্যমী বেকার যুবকের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। অনেকেই পরীক্ষামূলক ভাবে বাড়ীর আঙ্গিনায় শাক-সবজি ও ফলের বাগান করে ..বিস্তারিত

বিষমুক্ত সবজি চাষে লাইলী বেগমের ভাগ্যবদল

***এ কিউ রাসেল*** বিষমুক্ত সবজি চাষে লাইলী আবদুল গফুর-লাইলী দম্পতির অভাবের সংসার। স্বামী আবদুল গফুর দিনমজুর খাটেন। তবুও ছয় সদস্যের পরিবারের অভাব দূর হয়না। জীবনের তাগিদে দিশেহারা হয়ে পড়েছিলেন ওই দম্পতি। অভাব দূর করতে দিনমজুর স্বামী আবদুল গফুরকে বিদেশ পাঠাতে চেয়েছিলেন লাইলী বেগম। প্রায় দুই বছর আগে ধার করে পাঁচ লাখ টাকা সংগ্রহ করে স্বামীকে ..বিস্তারিত

লাভবান হওয়ার আছে উপায়ঃ সহজে গরু মোটাতাজাকরণ প্রকল্প

পারভেজ মোশারফ গরু মোটাতাজাকরণ প্রকল্প সহজে গরু মোটাতাজাকরণ প্রকল্প *স্থানিয়হাট থেকে গরু কিনে শুরু করা যায়। *অল্প বিনিয়োগে সল্প সময়ে লাভ সহ মূলধন ফিরত পাবেন। *স্থানিয় ভাবে প্রাপ্ত খাবার সাথে বাড়ির উচ্ছিষ্ট খাবার কাজে লাগানো যায়। যেভাবে সহজে করা যায় এবার আসি গরু বাছাই করনে। মুটামুটি সবাই জানেন তারপরেও আবার বলছি বয়স ২ থেকে৩ বছর ..বিস্তারিত

শস্য ভান্ডার খ্যাত শেরপুরের নকলা উপজেলায় শশার বাম্পার ফলন

মোঃ মোশারফ হোসেন, নকলা থেকে  : শশার বাম্পার ফলন শস্য ভান্ডার খ্যাত শেরপুরের নকলা উপজেলায় এ বছর শশার বাম্পার ফলনে দিন বদল হয়েছে অন্তত দেড়শতাধিক পরিবারের। এ সবজি চাষের মধ্যদিয়ে ভাগ্য খোলার পথ খোঁজে পেয়েছেন তারা। পরিবারে এসেছে সচ্ছলতা; তারা হয়েছে আত্মনির্ভরশীল। তাদের উৎপাদিত শশা গুণগত মান ভালো হওয়ায় রাজধানী ঢাকা সহ বিভিন্ন জেলা শহরে ..বিস্তারিত

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ার দক্ষিণ ভেচকী গ্রামের সফল কৃষক নূর সাইদ

কৃষিবিদ জাহেদুল আলম রুবেল কৃষক বাবার চাষাবাদে শিশু বয়সেই সহযোগিতা করতে গিয়ে নূর সাইদ হিনু কৃষক হয়ে ওঠেন। স্কুলের চৌকাঠে পা রাখতে পারেননি। কৃষক বাবার অন্য তিন সন্তান লেখা পড়া করে চাকুরী করলেও নূর সাইদের জীবনে তা ঘটেনি। নিজের নাম দস্তখত কোন মতে করতে পারলেও কৃষির পাঠ ভালই রপ্ত করেছেন তিনি। ষাটোর্ধ বয়সী নূর সাইদ ..বিস্তারিত

হলুদ চাষ করে সফলতা পেয়েছেন শেরপুর জেলার নকলার চাষিরা

মোঃমোশারফ হোসেন, স্পেশাল করেস্পন্ডেন্ট : শেরপুরের প্রান্তিক চাষিরা হলুদ চাষ করে লাভবান হচ্ছেন। তার অংশ হিসেবে জেলার নকলা উপজেলার চন্দ্রকোনা, পাঠাকাটা, চরঅষ্টধর, বানেশ্বর্দী, গণপদ্দী ও উরফা ইউনিয়নের অনেক চাষি হলুদ চাষ করে সংসারে সচ্ছলতা এনেছেন। অনুর্বর জমিতে কম পুঁজিতে ও নামে মাত্র শ্রমে অধিক মুনাফা পাওয়ায় উপজেলায় হলুদ চাষির সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। স্থানীয় ..বিস্তারিত

শখের বসে লিচু ও ড্রাগন ফল চাষে লাখপতি পারুল বেগমের গল্প

মোঃ মোশারফ হোসেন, নকলা (শেরপুর) : শখের ড্রাগন ও লিচু  ফল চাষে লাখপতি পারুল । বাগান হতে বছরে লক্ষাধিক টাকা আয় করছেন শেরপুর জেলার নকলা উপজেলাধীন বানেশ্বরদী ইউনিয়নের বাউসা গ্রামের আকাব্বর আলীর স্ত্রী পারুল বেগম। বাড়ির আঙ্গীনায় এক একর জমিতে গড়ে তোলা তার শখের বাগান হতে লাভবান হচ্ছেন তিনি। তার বাগানে নানা প্রজাতির ফল ও ..বিস্তারিত

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৭-২০১৮. কৃষিসংবাদ.কম
(গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য অধিদপ্তরে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত)