এই পাতাটি প্রিন্ট করুন এই পাতাটি প্রিন্ট করুন

সিভাসু’তে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছার ম্যুরাল উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম সিটি মেয়র

Share

সিভাসু’তে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছার ম্যুরাল

কৃষি সংবাদ ডেস্কঃ

সিভাসু’তে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছার ম্যুরাল ঃ চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ের (সিভাসু) বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা হলে নবনির্মিত ‘বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা ম্যুরাল’ আজ (০৫.১২.২০১৮) বিকাল ৩:০০ ঘটিকায় উদ্বোধন করা হয়েছে। ম্যুরালটি উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ.জ.ম. নাছির উদ্দীন। এসময় সিভাসু’র উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা, কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

বর্তমান প্রজন্মকে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুুজিবের জীবনসংগ্রাম ও দেশপ্রেমের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়ার প্রয়াসে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এই ম্যুরালটি নির্মাণ করে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলার মাঠে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র আ.জ.ম. নাছির উদ্দীন বলেন, বাংলাদেশের দীর্ঘ স্বাধীনতা সংগ্রামের বিভিন্ন পর্যায়ে বঙ্গবন্ধুকে সব সময় সাহস ও প্রেরণা যুগিয়েছেন বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব। বঙ্গবন্ধু কারাগারে অন্তরীণ থাকাকালে তিনি পরিবারের পাশাপাশি দলেরও হাল ধরেছিলেন। বঙ্গমাতার ভূমিকার কারণে স্বাধীনতার আন্দোলন চোরাবালিতে হারিয়ে যায়নি।

মেয়র আরও বলেন, বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের প্রত্যেকটি ক্ষেত্রে দৃশ্যমান উন্নতি হয়েছে। এ বিষয়ে বিতর্কের কোনো সুযোগ নেই। তিনি উন্নয়নের এই ধারাবাহিকতা বজায় রাখার উদ্দেশ্যে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তির পাশে দাঁড়ানোর জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

প্রধান পৃষ্ঠপোষকের বক্তৃতায় সিভাসু’র উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ বলেন, বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছিলেন এক মহীয়সী নারী। তিনি আমৃত্যু বঙ্গবন্ধুর পাশে থেকে বাঙালির জন্য নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে গেছেন। সহজ-সরল ও নিরহংকারী ফজিলাতুন্নেছা মুজিব দেশ ও জাতি গঠনে যে অবদান রেখে গেছেন-তা যুগে যুগে সকলের জন্য অনুপ্রেরণার উৎস হয়ে থাকবে।

বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা হলের প্রভোস্ট প্রফেসর ড. জান্নাতারা খাতুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিশারিজ অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ নুরুল আবছার খান, ফুড সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি অনুষদের ডিন প্রফেসর ডা. মো. রায়হান ফারুক, ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদের ডিন প্রফেসর মো. আবদুল হালিম, ভারপ্রাপ্ত ছাত্রকল্যাণ পরিচালক প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন।

আরও পড়ুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৭-২০১৮. কৃষিসংবাদ.কম
(গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য অধিদপ্তরে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত)